Main Menu

সাধারণ দ্বন্দ্ব – ২

জনি হাসান

এটা কোন প্রশ্ন কিংবা ভাবনা না হলেও মাঝে মাঝে অবান্তর বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। যখন সময়ের প্রচন্ড কমতিতে চর্চা জমাট বাঁধতে পারে না । ফলাফল তেমন একটা প্রভাব না ফেললেও অন্তঃসারশূন্য না করলেও যে সূক্ষ্ম আস্তর পড়ে সেটাকে কি বা বলা যায় ? বড়জোর কিছুই না বলে দীর্ঘ বেখেয়াল অবস্থায় থাকে । সেটা হচ্ছে অধিকার নামের একটা বিষয়। ভালো লাগার একটা বিষয় এই যে ইতি মধ্যে কিছু মৌলিক অধিকার নামের জিনিস চর্চা হচ্ছে বা প্রচার চলছে । অক্ষমতার দায় এড়াতে অধিকার ন্যাস্ত ক‌রে কিংবা এটা আমার অধিকার নয় কিংবা অধিকারের মৌলিকতা খুঁজি ।রএই তিনটি আপাতদৃষ্টিতে আলাদা মনে হলেও তা আদৌ আলাদা কি ? রাষ্ট্রীয় অধিকার আমার \আমাদের দেশের শাসক হওয়া । কিন্তু বিভিন্ন তথ্ব্য উপায় আমি সহ সবাই মিলে আমাদের অধিকার একজনকে দিয়ে দিই। বাকিরা স্বেচ্ছায় অধিকার হারায়। বহু শাসক কাম্য না হলেও অন্তত রাষ্ট্রীয় অধিকার প্রত্যেকের বজায় না থাকাটা কি সবার কাম্য ? তারপরও হচ্ছে । দেখা যায় সমস্যা নেই ; আর আমরাও খুব সহজে এর চর্চা থেকে দূরে সরে গেলাম। প্রকাশ না পেলেও প্রায় সবাই ভে‌বে থা‌কি এটা বা ওটা আমার কিংবা আমাদের অধিকার নয় ।ভেবে থাকি প্রকাশ পরবর্তী অধিকারের দাবি বর্তমানকে অতিক্রম করতে পারবে না । নিতান্তই অহেতুক হবে হয়তো। সেখান থেকেই পরিস্থিতি সামাল দিতে না পারার জ্ঞানটুকু অর্জনের সফলতায় আমাদের সন্তুষ্টি। এই সন্তুষ্টি অর্জনই বেশিরভাগ প্রকাশের বিসর্জনের কারণ। ফলে প্রচলিত ভুলে ভরা তথ্য গুলো প্রকাশের অধিকার একচেটিয়া কারো অধিকারে যাচ্ছে আর অন্য কেউ অধিকার নয় ভেবে আপেক্ষিক ভালো কিছু প্রকাশ থেকে বিরত থাকছে। মৌলিক অধিকার এটাই বোঝায়; এর বাইরেও অধিকার আছে। কিন্তু এটা সত্য মৌলিক অধিকারের আওতার অধিকার চর্চায় বাইরের অধিকার আরো বেশি মৌলিক হয়ে যায়। তবে নিরলস চেষ্টা কেবল গুটিকয়েক অধিকারের জন্য কেন ? উপলব্ধির মাত্রা অতি না হলেও মৌলিক অধিকারের প্রয়োজনীয়তা কেন বুঝি ? তার মানে অধিকারের ভাগ আছে অধিকার চর্চা থেকে এত দূরে সরে গিয়েছি সবাই যে, খাদ্য গ্রহনের পরবর্তী বস্ত্র পরিধানের পর শিক্ষা গ্রহনের পরবর্তী বাসস্থান ও চিকিৎসা গ্রহণের পরে স্থবির হয়ে যায় অথচ আর কিছু না হোক শিক্ষা গ্রহণ অধিকার হলে পরবর্তী অধিকার গুলো আসে না কেন ? নাকি ঠিক করে এ অধিকার টাও হয় না।



« (পূর্বের সংবাদ)



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*