Main Menu

মাদক ছাড়লে দেয়া হবে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার সুযোগ: আইজিপি

  ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:

পুলিশ মহাপরিদর্শক ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, মাদক ব্যবসায়ী, গডফাদার ও মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্তদের কোনোভাবেই ছাড় দেয়া হবে না। তিনি বলেন, মাদক ছেড়ে কেউ যদি স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে চায়, তাহলে তাদের সুযোগ দেয়া হবে। আর মাদক ব্যবসায়ীরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে না আসলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের হুশিয়ারি দেন আইজিপি।

তিনি বলেন, এখনও জঙ্গিবিরোধী কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এ ব্যাপারেও আমাদের অবস্থান জিরো টলারেন্স। আইজিপি বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে যেভাবে যুদ্ধ চলছে, তা নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত যুদ্ধ চলবে।

সোমবার দুপুরে ময়মনসিংহ শহরের সার্কিট হাউস রোডে পুলিশ অফিসার্স মেসসহ ৯টি স্থাপনার উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন আইজিপি। আইজিপি বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে গত এক বছরেরও বেশি সময় ধরে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করে ব্যবস্থা নিচ্ছি।

ইতিমধ্যেই কক্সবাজারে ১২০ জনের বেশি মাদক ব্যবসায়ী আত্মসমর্পণ করেছে। আমরা সেখানে আহ্বান জানিয়েছি, কেউ যদি মাদক ব্যবসা ছেড়ে দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে আসতে চায়, আমরা সেই সুযোগ দিয়েছি। তিনি বলেন, কক্সবাজারের মতো আরও কয়েকটি জেলায় মাদক ব্যবসায়ী, গডফাদার ও মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্তরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে চাইছেন, তাদেরকে আমরা সুযোগ দেব।

ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাদেরকে ২০২১ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে একটি সুখী ও সমৃদ্ধ সোনার বাংলা দেখার যে স্বপ্ন দেখিয়েছেন, এটি তখনই সার্থক হবে যদি আমরা মাদক ও জঙ্গিবাদ থেকে পরিত্রাণ পেতে পারি। তাহলেই বাংলাদেশকে নিরাপদ আবাস হিসেবে পৃথিবীতে প্রতিষ্ঠিত করতে পারব।

তিনি বলেন, উন্নয়ন তখনই সম্ভব, যখন দেশটি নিরাপদ হবে এবং বিদেশি বিনিয়োগ আসবে। তিনি বলেন, যারা এখানে বসবাস করতে চান, নিজেদের যারা নিরাপদ মনে করবেন, আমরা সেই প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখব, যত দিন পর্যন্ত বাংলাদেশ সেই পর্যায়ে না পৌঁছাবে।

এ সময় রেঞ্জ ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঁঝি, অতিরিক্ত ডিআইজি ড. আক্কাস উদ্দিন ভূঁইয়া, জেলা প্রশাসক ড. সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস, পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেন, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক ইকরামুল হক টিটু, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল ও ময়মনসিংহ বিভাগের সব পুলিশ সুপার ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*