Main Menu

মশা মারার কামান নিয়ে মশার আস্তানায় চকরিয়ার ইউএনও

ডেঙ্গু প্রতিরোধ না হওয়া পর্যন্ত মশার আস্তানায় কামানের ব্যবহার অব্যাহত থাকবে

এম, রিদুয়ানুল হক, চকরিয়া:
এবার মশা মারার কামান নিয়ে মশার আস্তানায় অভিযানে নেমেছেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুর উদ্দীন মো. শিবলী নোমান। সাথে যুক্ত হয়েছেন চকরিয়া পৌর প্রশাসন ও ৩৯ এসটি ব্যাটেলিয়ন, চকরিয়া।

সোমবার (৫ আগস্ট) সকাল ১০ টার দিকে চকরিয়া পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে ডেঙ্গু প্রতিরোধে মশা মারার কামান হাতে নিয়ে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন, চকরিয়া পৌর প্রশাসন ও চকরিয়া আর্মি ক্যাম্পের যৌথ উদ্যোগে স্প্রে ছিটানো হয়। এর পূর্বে উপজেলা প্রশাসন, চকরিয়া পৌরসভা ও ৩৯ এসটি ব্যাটেলিয়ন এর উদ্যোগে সচেতনতামূলক র‍্যালি বের করা হয়।

একই দিন সকাল ১১ টার দিকে চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ ক্যাম্পাস, চকরিয়া আবাসিক মহিলা কলেজ ক্যাম্পাস, চকরিয়া বিজয় মঞ্চ, ফুলতলা সহ বেশ কয়েকটি স্থানে ডেঙ্গু প্রতিরোধের স্প্রে ছিটানোর দৃশ্য লক্ষ্য করা যায়। পাশাপাশি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরু সহ জনসচেতনতা বাড়াতে নানা কর্মসূচি পালন করতে দেখা যায়।

অভিযানে সরাসরি নেতৃত্ব দেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুর উদ্দিন মো. শিবলী নোমান ও চকরিয়া আর্মি ক্যাম্পের অর্ডেন্স ডেপু লে. কর্নেল কামাল হোসেনের নেতৃত্বে প্রশিক্ষিত একটি বিশেষ টিম। এসময় উপস্থিত ছিলেন – চকরিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক চুট্টু, চকরিয়া পৌর সচিব মাস-উদ-মোর্শেদ, প্যানেল মেয়র বশিরুল আইয়ুব, কাউন্সিলর মছুদুল হক মধু, কাউন্সিলর জিয়াবুল হক, কাউন্সিলর জাফর আলম কালু, কাউন্সিলর রাজিয়া সোলতানা খুকুমনি, কোরক বিদ্যাপীঠের সহকারী প্রধান শিক্ষক ফজলুল কাদের, সিনিয়র শিক্ষক আনছারুল করিম, চকরিয়া ইউএনও অফিস সহকারী শান্তি বাবু, পৌর কর্মকর্তা নাজিম উদ্দিন, হায়দার আলীসহ বিভিন্ন মিডিয়ার সংবাদকর্মী ও বিভিন্ন পেশার মানুষ।

গত কয়েকদিন ধরে চকরিয়া উপজেলার পুরো এলাকায় মশা নিধনের স্প্রে ছিটানোসহ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান অব্যাহত রেখেছে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন। এছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে এবং মশা নিধনের স্প্রে ছিটানো হচ্ছে।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধ না হওয়া পর্যন্ত চকরিয়া উপজেলার প্রতিটি স্থানে মশা মারার কামানের ব্যবহার চলবে। তিনি বলেন- ‘মশার উপদ্রব কমাতে শহরের ড্রেনসহ বিভিন্ন এলাকা পরিষ্কার রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, চকরিয়াবাসীদেরকে ডেঙ্গুর মহামারি থেকে বাঁচাতে প্রয়োজনে আমরা দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা মাঠে অবস্থান করবো এবং ডেঙ্গু প্রতিরোধে প্রয়োজনে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন মনিটরিং সেল গঠন করবে।

চকরিয়া ৩৯ এসটি ব্যাটেলিয়ন এর অর্ডেন্স ডেপু লে. কর্নেল কামাল হোসেন বলেন – সারাদেশে ডেঙ্গুর মহামারিতে বেশ কিছু লোক মারা গেছেন এবং অসংখ্য লোক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এদিকে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সারা দেশে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সেনাবাহিনীর সদস্যরা সার্বক্ষণিক মাঠে কাজ করছে। তার ধারাবাহিকতায় চকরিয়া আর্মি ক্যাম্পের একটি প্রশিক্ষিত সেনা দল ডেঙ্গু প্রতিরোধে কাজ চালিয়ে যাবে। এবিষয়ে সাধারণ মানুষের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেছেন কর্নেল কামাল হোসেন।

পৌর মেয়র আলমগীর চৌধুরী বলেন, ‘মশার উপদ্রব কমাতে শহরের ড্রেনসহ বিভিন্ন এলাকা পরিষ্কার করা হচ্ছে। ড্রেন ও খাল দিয়ে যেন স্বাভাবিকভাবে পানি চলাচল করতে পারে সে জন্য পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে এবং ডেঙ্গু প্রতিরোধ অভিযান চলমান থাকবে বলে জানান তিনি।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*