Main Menu

পাবনায় ভূমিগ্রাসীদের হামলা এবং মারপিটের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

তোফাজ্জল হোসেন বাবু, পাবনা

পাবনার চাটমোহরে নিজের ক্রয়কৃত বাড়িতে বসবাসের দাবিতে এবং ভূমিগ্রাসী কর্তৃক হামলা,ভাঙচুর ও মারপিটের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন উপজেলার গুনাইগাছা ইউনিয়নের বড়শালিখা গ্রামের মো. আনোয়ার হোসেন কায়েমের স্ত্রী রাফিয়া পারভীন মুক্তি ও তার পরিবারের সদস্যরা।

আজ শনিবার বিকেল ৩ টায় বড়শালিখা গ্রামে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন রাফিয়া পারভীন মুক্তি।

তিনি বলেন, ২০১৮ সালের ১৩ই আগষ্ট চাটমোহর সাবরেজিস্ট্রি অফিসের মাধ্যমে বড়শালিখা মৌজার ২৮৭ নং দাগের ৫ শতাংশ বসতবাড়ি জনৈক রেজাউল করিমের নিকট থেকে ক্রয় করি। কিন্তু এই জমির পূর্বের মালিক মোছাঃ মদিনা খাতুন এবং তার ৪ ভাই বশির আল হেলাল,আমজাদ হোসেন,মোসলেম উদ্দিন ও হুমায়ুন কবির চুন্নু এই জমি বেদখল দেওয়ার অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়। তারা জোরপূর্বক জমির সীমানা বেড়াসহ অন্যান্য বেড়া ভাঙচুর করেন। এবিষয়ে চাটমোহর থানায় অভিযোগ দেওয়া হলেও তারা কোন সুরাহায় না বসে আদালতে মিথ্যে অভিযোগে মামলা করেন। চাটমোহর থানার ওসি উভয়পক্ষকে শান্ত থাকার নির্দেশ দেন। কিন্তু মদিনা খাতুন ও তার ভাইয়েরা আবারো জমি দখলের অপচেষ্টা চালায়। সংবাদ সম্মেলনে আরো অভিযোগ করা হয়,জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে মদিনা খাতুন গং গত ৪ ডিসেম্বর হঠাৎ বসতবাড়ির উপর হামলা চালায় এবং মারপিট শুরু করে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এলে তারা পুলিশের উপরও হামলা করে। এতে পুলিশের ৩ সদস্যসহ ১০/১২ জন আহত হন। গুরুতর আহত রফিকুল ও হোসেন আলীকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। হামলাকারীরা বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীরা জানায়,এই জমিতে মদিনা খাতুন বা তার ভাইদের কোন প্রকার স্বত্ব নেই। মদিনা,তার স্বামী হাবিবুরসহ অন্যরা এই দাগের তাদেরই বিক্রি করা জমিতে নির্মিত বাড়িতে ভাড়া থাকেন। মদিনার মেয়ে ও ভাইয়েরা এলাকায় দুষ্ঠ লোক হিসেবে পরিচিত। তারা সন্ত্রাস কায়দায় আমাদের নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে রাফিয়া পারভীন মুক্তি বলেন,আমাদের ক্রয়কৃত জমিতে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করতে চাই। যাদের জমিতে কোন স্বত্বই নেই,সেই সকল ভূমিগ্রাসীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি। সংবাদ সম্মেলনে রাফিয়ার স্বামী আনোয়ার হোসেন কায়েম,তার মেয়ে কেয়া পারভীন,রেজাউল করিম,আঃ জব্বার.সাব্বির হোসেনসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*