Main Menu

পটিয়া বাইপাস সড়ক আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন হুইপ সামশুল হক চৌধুরী

 এস,টি, মানিক পটিয়া

পটিয়া আসনের এমপি ও জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী বলেছেন, বাইপাস চালুর ফলে পটিয়ায় আর কোন যানজট থাকবে না। এ বাইপাস পটিয়াকে আধুনিক রূপ পেতে সহায়ক হবে। পটিয়ার মূল শহরে যানজট থেকে মুক্তি পাবে লোকজন। এ সময় তিনি বলেন, এ বাইপাস সড়ক পটিয়ার নয়। এটি দক্ষিণ চট্টগ্রামের যাত্রীদের জন্য ভোগান্তি থেকে মুক্তি দেবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুই বছরের মধ্যে সড়কটি নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করার নির্দেশ দেন। তার নির্দেশ মতে দুই বছরের মধ্যেই সড়কটি নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করার পর তিনি ঈদ উপলক্ষে পটিয়াসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামবাসীর জন্য খুলে দেয়া নির্দেশনা দেয়া হয়। আজ শনিবার সকাল ১১টায় বাইপাসের ইন্দ্রপুল পয়েন্টে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর সড়কটি খুলে দেন হুইপ সামশুল হক।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি আ ক ম সামশুজ্জমান চৌধুরী, দোহাজারী সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুমন সিংহ, উপবিভাগীয় প্রকৌশলী শাখাওয়াত হোসেন, সহকারী কমিশনার ভূমি সাব্বির রহমান সানি, জেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রদীপ দাশ, দক্ষিণ জেলা যুবলীগ সভাপতি আ ম ম টিপু সুলতান চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের নারী ভাইস চেয়ারম্যান মাজেদা বেগম শিরু, জেলা পরিবষদ সদস্য দেবব্রত দাশ দেবু, জেলা আ’লীগ নেতা বিজন চক্রবর্তী, রাশেদ মনোয়ার, কাউন্সিলর রুপক সেন, পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন, টিআই মোহাম্মদ বশির, উপজেলা আ’লীগ নেতা আবদুল খালেক, চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সৈয়দ, লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি ফজলুল হক আল্লাই, ব্যবসায়ী মোহাম্মদ হেলাল, পৌরসভা আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক এম এন এ নাছির, যুগ্ম সম্পাদক নাজিম উদ্দিন পারভেজ, যুগ্ম সম্পাদক সোরোয়ার হায়দার চৌধুরী, পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি নুরুল আলম সিদ্দিকী, যুবলীগ নেতা জহির তালুকদার, ছাত্রলীগ মোহাম্মদ আবু তৈয়ব সোহেলসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার নেতৃবৃন্দ।

জানা গেছে, ২০১৬ সালের ১ জুন সওজ চট্টগ্রাম বিভাগীয় দফতরে পটিয়া বাইপাস সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের দাখিলকৃত দরপত্র খোলা হয়। ঢাকা র‌্যাব আরসি এন্ড রিলাভেল বিন্ডার্স নামের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সড়ক নির্মাণের কার্যাদেশ পায়।
পটিয়া আসনের এমপি ও জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী বলেছেন, বাইপাস চালুর ফলে পটিয়ায় আর কোন যানজট থাকবে না। এ বাইপাস পটিয়াকে আধুনিক রূপ পেতে সহায়ক হবে। পটিয়ার মূল শহরে যানজট থেকে মুক্তি পাবে লোকজন। এ সময় তিনি বলেন, এ বাইপাস সড়ক পটিয়ার নয়। এটি দক্ষিণ চট্টগ্রামের যাত্রীদের জন্য ভোগান্তি থেকে মুক্তি দেবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুই বছরের মধ্যে সড়কটি নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করার নির্দেশ দেন। তার নির্দেশ মতে দুই বছরের মধ্যেই সড়কটি নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করার পর তিনি ঈদ উপলক্ষে পটিয়াসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামবাসীর জন্য খুলে দেয়া নির্দেশনা দেয়া হয়। আজ শনিবার সকাল ১১টায় বাইপাসের ইন্দ্রপুল পয়েন্টে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর সড়কটি খুলে দেন হুইপ সামশুল হক।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি আ ক ম সামশুজ্জমান চৌধুরী, দোহাজারী সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুমন সিংহ, উপবিভাগীয় প্রকৌশলী শাখাওয়াত হোসেন, সহকারী কমিশনার ভূমি সাব্বির রহমান সানি, জেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রদীপ দাশ, দক্ষিণ জেলা যুবলীগ সভাপতি আ ম ম টিপু সুলতান চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের নারী ভাইস চেয়ারম্যান মাজেদা বেগম শিরু, জেলা পরিবষদ সদস্য দেবব্রত দাশ দেবু, জেলা আ’লীগ নেতা বিজন চক্রবর্তী, রাশেদ মনোয়ার, কাউন্সিলর রুপক সেন, পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন, টিআই মোহাম্মদ বশির, উপজেলা আ’লীগ নেতা আবদুল খালেক, চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সৈয়দ, লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি ফজলুল হক আল্লাই, ব্যবসায়ী মোহাম্মদ হেলাল, পৌরসভা আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক এম এন এ নাছির, যুগ্ম সম্পাদক নাজিম উদ্দিন পারভেজ, যুগ্ম সম্পাদক সোরোয়ার হায়দার চৌধুরী, পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি নুরুল আলম সিদ্দিকী, যুবলীগ নেতা জহির তালুকদার, ছাত্রলীগ মোহাম্মদ আবু তৈয়ব সোহেলসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার নেতৃবৃন্দ।

জানা গেছে, ২০১৬ সালের ১ জুন সওজ চট্টগ্রাম বিভাগীয় দফতরে পটিয়া বাইপাস সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের দাখিলকৃত দরপত্র খোলা হয়। ঢাকা র‌্যাব আরসি এন্ড রিলাভেল বিন্ডার্স নামের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সড়ক নির্মাণের কার্যাদেশ পায়






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*