Main Menu

জমির সীমানা বিরোধে শালিসী বৈঠক চলাকালে হত্যার চেষ্টায় ৫ জনকে কুপিয়ে জখম

চকরিয়া প্রতিনিধি, কক্সবাজার।    
চকরিয়ার ডুলাহাজারা বৈরাগিরখিল গ্রামে মরহুম  আলহাজ্ব ডাঃ আবু তাহেরের স্ত্রী, কন্যা, পুত্র ও পুত্রবধু কে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে জখম করেছে একই গ্রামের মৃত ফয়েজ আহমদের ছেলে পুলিশ কনস্টবল বখতিয়ার উদ্দিন ভুট্টো ও ভুট্টোর স্ত্রী লিপি বেগম সহ আরও ১০-১২ জন মিলে।
ডাঃ আবু তাহেরের ভাগিনা ভুট্টোর সাথে বাড়ির সীমানা নিয়ে অনেক দিন যাবৎ বিরোধ চলছিল আবু তাহেরের সাথে। বিগত কিছু দিন আগে ডাক্তার আবু তাহেরের ইন্তেকাল হলে, ভাগিনা বখতিয়ার এই সুযোগে বিরোধীয় জমিতে বাউন্ডারি ওয়াল তৈরি করতে কাজ শুরু করে। তাতে আবু তাহেরের পুত্ররা বাঁধা দেওয়ায়, স্থানীয় মুরব্বিরা একটি শালিসী বৈঠকের ব্যাবস্থা নেন। আজ সকালে এই বৈঠকে ডাঃ আবু তাহেরের পুত্র আবু দরদা ও আব্দুল্লাহ আল নোমান উপস্থিত হলেই পুর্ব পরিকল্পনামতো বখতিয়ার উদ্দিন ভুট্টো ও তার স্ত্রী লিপি, স্থানীয় জসিম উদ্দিন,  ও তার পুত্র মামুন, ওমর ফারুক, ওবায়দুল সহ ১০/১২ জন ধারালো ছুরি, রামদা, কিরিচ ও হাতুড়ি দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে আক্রমণ করতে থাকে। তাদের কে উদ্ধার করতে ওদের মা রহিমা আক্তার, বোন হাবিবা খানম শামীম ও নোমানের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী ইয়াছমিন আক্তার এগিয়ে আসিলে তাদের কে ও মারধর করে জখম করে। পরে স্থানীয় লোকজন এসে তাদের কে উদ্ধার করে চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়।
আবু দরদা ও আব্দুল্লাহ আল নোমান কে গলায় ও চোখে  চুরি দিয়ে মারাত্মক ভাবে জখম করায়, তাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্যে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন চকরিয়া সরকারি হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ রেজাউল করিম। অন্যদের চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
এদিকে পুলিশ সদস্য বখতিয়ার উদ্দিন  ভুট্টো সহ ১০-১২ জনের নামে থানায় মামলা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মরহুম ডাঃ আবু তাহেরের অপর ছেলে চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল্লাহ আল আরমান।  পুলিশের চাকুরীরত ভুট্টোসহ তার পরিবারের উপর।





Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*