Main Menu

একঝাঁক শিক্ষার্থী নিয়ে বার্ষিক শিক্ষাসফর সমাপ্ত করেছে চকোবি হোস্টেল কর্তৃপক্ষ

এম, রিদুয়ানুল হক, চকরিয়াঃ
প্রতি বছরের ন্যায় এবারও একঝাঁক চেনা-অচেনা নতুন শিক্ষার্থী নিয়ে শিক্ষাসফর সমাপ্ত করেছে চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠ হোস্টেল কর্তৃপক্ষ। তবে এবারের আয়োজনটা ছিল ভিন্ন রকম। কারণ শিক্ষাসফরে শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি অংশ নিয়েছে অনেক শিক্ষক, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও শিক্ষানুরাগী।

৯ মার্চ (সোমবার) ভোরে বান্দারবানের উদ্দ্যেশে বেশ কয়েকটি বাস সহকারে যাত্রা শুরু করে চকোবি হোস্টেলের শিক্ষার্থী।
প্রত্যেক শিক্ষার্থী আলাদা বৈশিষ্ট্যের হওয়ায় তাদের মধ্যে থাকে ভিন্নতা। এ ভিন্নতার কারণেই অনেক সময় জন্ম নেয় দ্বন্দ্ব-কলহ ও বিভেদ। এ ক্ষেত্রে বার্ষিক শিক্ষাসফর কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে। কারো প্রতি কোনো ভুল ধারণা থাকলে সফরের সময় তা দূর হয়ে যায় নিমিষেই। আর যদি সেই সফর হয় কোনো সমুদ্র তীরে, বা পাহাড়ি অঞ্চলে, তাহলে তো কথাই নেই।

যাত্রা শুরুর অল্প কয়েক ঘণ্টা পর পৌঁছে গেল সেই মনোমুগ্ধকর পাহাড়ি অঞ্চল বান্দারবানে। সেখানে গিয়ে বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান, যেমন-নীলাচল, বৌদ্ধ প্যাগোড়া, মেঘলা সহ বেশকিছু স্থান পরিদর্শন করে ভ্রমণকারীরা। দুপুরের খাবার শেষে শুরু হয় নানা ধরনের বিনোদন। শিক্ষার্থীরা হাসি-আনন্দের মাধ্যমে শিক্ষাসফর শেষে সন্ধ্যায় ফিরে আসে আসল ক্যাম্পাসে।

শিক্ষার্থীদের সাথে আনন্দ উল্লাসে অংশ নিয়েছেন চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক নুরুল আখের, প্রতিষ্ঠাতা সদস্য আলহাজ্ব নুরুল আবচার, অভিভাবক সদস্য আবু মুছা, ইসমত আরা বুলু, শিক্ষক প্রতিনিধি জাইদুল হক, শিক্ষকদের মধ্যে আবুল বশর, নজরুল ইসলাম, শফিউল আলম (ভারপ্রাপ্ত হোস্টেল সুপার), মুক্তা ম্যাডাম, জুবাইদা বেগম, নুরুল মোস্তফা, নজরুল ইসলাম, সুজিত বড়ুয়া, জাহেদুল ইসলাম, শাহ আলম, মলি ম্যাডাম, কম্পিউটার ম্যান রনি, অফিস সহকারি (হোস্টেল) শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক বলেন- শিক্ষাসফরের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মান-অভিমান ও দ্বন্দ্বের অবসান ঘটে সহজেই। তাই প্রতিটা শিক্ষাসফর নিঃসন্দেহে শিক্ষার্থী-শিক্ষকের মধ্যে আন্তরিকতা ও পারস্পরিক সম্পর্ক বাড়াতে সহায়তা করে।

প্রতিষ্ঠাতা সদস্য আলহাজ্ব নুরুল আবচার বলেন- শিক্ষাজীবনে অনেক সময় যেকোনো ছাত্রের প্রতি শিক্ষকের জন্ম নিতে পারে রাগ-অনুরাগ। হতে পারে ভুল বোঝাবুঝি। শিক্ষাজীবনে তাই ছাত্র-শিক্ষকের মধ্যে সম্পর্ক নির্ণয়ের পর বন্ধন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এ বন্ধন নির্ণীত হতে পারে শিক্ষাসফরে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*