Main Menu

অন্ধকারে স্কুলের বই পাচার: ট্রাকসহ আটক-৪

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ
রাতের অন্ধকারে স্কুলেরর পাঠ্য-বই পাচারকালে বই ভর্তি একটি ট্রাক জব্দ করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জয়নাল আবেদীন। এ সময় তিনি  ট্রাক চালক, হেলপার ও ফেরিওয়ালাসহ ৪ জন আটক করে। তবে আটকৃত ব্যক্তিরা সাতকানিয়া কেরানিহাটের বাসিন্দা বলে জানা গেছে। পরে পুলিশ এসে আটক ব্যক্তি থানায় নিয়ে গেলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদেরকে স্কুলের প্রধান শিক্ষক জিম্মায় নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী কিশলয় আদর্শ শিক্ষা নিকেতন স্কুলে সোমবার রাত সাড়ে ১০ টার সময় এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এলাকাজুড়ে সমালোচনা ঝড় সৃষ্টি হয়েছে। এলাকাবাসীর দাবী বই চুরির ঘটনায় জড়িতদের কঠিন শাস্তি হোক।
এ বিষয়ে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি ও ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন বলেন,রাতে অন্ধকারে স্কুলের পাঠ্য বই পাচারের কথা আমাকে জানালে, আমি বিষয়টি ইউএনও স্যারকে জানায়।পরে স্যারে নির্দেশক্রমে বই ভর্তি ট্রাক জব্দ সহ গাড়ী চালক,হেলপার ও ২ ফেরওয়ালাকে হাতে-নাতে আটক করি।এসময় পাচারকারী কাউকে পাইনি।সঠিক তদন্তের মাধ্যমে চুর শাস্তি কামনা করছি। তবে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা স্বীকার করে বলেন,এতে স্কুলের প্রধান শিক্ষক,সহকারী শিক্ষক ও কমিটির বেশ একজন সদস্য এ কাজে জড়িত।
তবে বই চুরি খবর পেয়ে ছুটে আসেন কমিটির সদস্য মুজিবুর রহমান ও আবুল কালাম আজাদ। তারা জানান, প্রধান শিক্ষককের যোগসাজশে বই পাচার কাজে কিছু শিক্ষক ও কমিটির সদস্য জড়িত রয়েছে। তবে বই বিক্রির ব্যাপারে তারা কিছুই জানেন না। এমনকি সভাপতি,প্রধান শিক্ষকও তাদের কিছুই বলেন নি বলে জানান।
কমিটি সূত্রে জানা গেছে,অত্র স্কুলের কর্মরত সহকারী শিক্ষক বাহাদুর হকের যোগসাজসে,কর্মরত প্রধান শিক্ষক তাজুল ইসলাম ও ম্যানেজিং কমিটির প্রাথমিক শাখার সদস্য সাঈদ মোঃ শাহজালাল এ ঘটনায় জড়িত বলে দাবী করেছেন।
এবিষয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক তাজুল ইসলাম বলেন, স্কুলে বই চুরির ঘটনা ঘটেনি।আমি পরেদিন স্কুলে আসলে ছিড়াফাটা বই গুলো যথাস্হানে দেখিছি।যারাদেরকে আটক করেছে তারাতো আমার এরিয়ায় আসেনি।তাই নিহর মানুষের জিম্মা নিয়েছি। কেন জিম্মা নিয়েছেন বললে,তিনি বলেন, তারা চুর নহে তাই বলে আর কোন কথা না শুনে লাইন কেটে দেন।





Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*